,

প্রস্তুতি নিয়ে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন ইশতিয়াক


কুষ্টিয়া প্রতিনিধিঃ
ফিজিক্স অলিম্পিয়াড জাতীয় পর্যায় শেষে আর্ন্তজাতিক পর্যায়ে অংশ গ্রহণ করার প্রস্তুতি নিয়ে ব্যস্ত সময় পার করছেন ১১তম বাংলাদেশ ফিজিক্স অলিম্পিয়াড জাতীয় পর্যায়ের সি ক্যাটাগরিতে বিজয়ী গোলাম ইশতিয়াক সাদাত।
সাদাত কুষ্টিয়া সরকারী কলেজের প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী। তিনি কুষ্টিয়া পুলিশ লাইনস স্কুল এন্ড কলেজের সহকারী অধ্যাপক গোলাম ফারুক ও পোড়াদহ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক কামরুন নাহারের ছেলে।
এর আগে ২০১৯ সালে এশিয়ান ফিজিক্স আর্ন্তজাতিক অলিম্পিয়াডের প্রতিযোগী হিসাবে অস্ট্রেলিয়া ভ্রমন করে।
জানা যায়, দেশের ৬৪ জেলা থেকে জাতীয় ফিজিক্স অলিম্পিয়াডে ৯ হাজার ৮শ জন প্রতিযোগী রেজিষ্ট্রেশন করেন। পর্যায়ক্রমে জেলা ও আঞ্চলিক পর্যায়ে তুমুল প্রতিযোগীতার মাধ্যমে ২ হাজার ৯শ জন উত্তীর্ণ হন। পরবর্তীতে জাতীয় পর্যায়ে ১১শ’ জনের মধ্যে তিনটি ক্যাটাগরিতে প্রথম স্থান লাভকারীসহ ৯৫ জনকে পুরস্কৃত করা হয়।
গোলাম ইশতিয়াক সাদাত জানান, “ছোট বেলা থেকেই ফিজিক্সের প্রতি আমার আগ্রহ বেশি। এজন্য ফিজিক্স বিষয়ে বিভিন্ন জাতীয় ও আর্ন্তজাতিক প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করেছি। বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় বিজয়ীও হয়েছি। সর্বশেষ আমি ১১তম বাংলাদেশ ফিজিক্স অলিম্পিয়াড জাতীয় পর্যায়ের সি ক্যাটাগরিতে বিজয়ী হই।”
তিনি আরো বলেন, “আমরা যারা তিনটি ক্যাটাগরিতে প্রথম স্থান অধিকারী ৩জনসহ মোট পাঁচজন আগামী ১৫ জুলাই আর্ন্তজাতিক অলিম্পিয়াড অনুষ্ঠিত হবে। করোনার কারণে এবার ভার্চ্যুয়ালে অলিম্পিয়াড প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হবে।”
সাদাতের পিতা গোলাম ফারুক জানান, “সব সময় সাদাত ফিজিক্সকে বেশি মনোযোগ দিয়ে থাকে। আমরা চাই সে একজন ভালো মানুষ হোক। বর্তমানে সাদাত আর্ন্তজাতিক প্রতিযোগিতা নিয়ে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছে।”

Facebooktwitterlinkedinyoutube
Facebooktwitterredditpinterestlinkedin


     More News Of This Category