,

ভুট্টাচাষে আগ্রহী হচ্ছেন চাষিরা

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি: কুড়িগ্রামের উলিপুরে বিভিন্ন নদ-নদীর অববাহিকায় জেগে উঠা চরে ভুট্টা চাষের উজ্জ্বল সম্ভাবনা থাকায় এ চাষাবাদের প্রতি আগ্রহী হচ্ছেন চাষীরা। কম খরচে অধিক লাভ হয় বলে এবছর ব্যাপক হারে ভুট্টা চাষাবাদ করা হয়েছে।

আবহাওয়া অনুকুলে থাকলে ভালো ফলনেরও উজ্জ্বল সম্ভাবনা রয়েছে। উৎপাদিত ফসলের নায্যমূল্য পেলে চাষাবাদের প্রতি তাদের আগ্রহ আরও বাড়বে বলে জানালেন চাষিরা।

জাতীয় খাদ্যের চাহিদা মেটাতে ধান ও গমের পাশাপাশি হাইব্রিড জাতের ভুট্টা চাষ এই এলাকায় জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। উপজেলার বেগমগঞ্জ, সাহেবের অলগা ও বুড়াবুড়ী ইউনিয়নের বিস্তীর্ণ চর এলাকায় চাষাবাদকৃত সবুজ ক্ষেতের সমারোহ বুঝিয়ে দিচ্ছে ভুট্টা চাষের অস্তিত্বের কথা।

ইসলামপুর চরে ভুট্টার ক্ষেতে খেটে যাওয়া ছকমল হোসেন নামে এক কৃষকের কাছে আবাদ কেমন হচ্ছে জানতে চাইলে বলেন, “এবার তিন একর জমিতে ভুট্টা চাষ করেছি। আশা করছি ভালোই ফলন হবে।’’ কৃষি অফিসের সহযোগিতা পেলে ফলন আরও বেশি হবে বলে বিশ্বাস তার।

বুড়াবুড়ীর চরে অলতাব হোসেন কৃষি অফিসের সহযোগিতায় এবছর প্রথম বারের মত সুপার ৭০২ জাতের ভুট্টা চাষ করছেন। তিনি জানান, ‘ধান চাষে বেশি খরচ হয় তাই ভুট্টা চাষ করেছি। এতে খরচ কম এবং লাভও বেশি।’ তবে তার শঙ্কা একটাই উৎপাদিত ফসলের নায্যমূল্য নিয়ে। তাদের মতো আরও অনেকেই ভুট্টা চাষ করে সাবলম্বী হওয়ার স্বপ্ন দেখছেন। ক্ষেতের ভালো অবস্থা দেখে তাদের মুখে হাসির ঝিলিক দেখা দিলেও প্রাকৃতিক বিরূপ প্রভাব নিয়ে সন্দিহানও তারা।

কিছু কৃষক অভিযোগ করেন, উপজেলা কৃষি বিভাগ থেকে কৃষকদেরকে ভুট্টা চাষের উপকরণ তুলে দিলেও সংশ্লিষ্ট বিভাগের উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তাগণ ক্ষেত পরিদর্শনে না আসায় প্রয়োজনীয় পরামর্শের অভাবে সম্ভাবনাময় ভুট্টা চাষ নিয়ে শঙ্কিত তারা।

এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তাগণ জানান, দুর্গম চরাঞ্চলগুলোতে যোগাযোগ ব্যবস্থা ভালো না থাকায় ভুট্টা ক্ষেত দেখতে যাওয়া বিলম্ব হচ্ছে। তবে সেখানে আমাদের কৃষক মাঠ স্কুলের কর্মীগণ কাজ করছেন।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা অশোক কুমার জানান, দেশের বিভিন্ন খাতে ভুট্টার পর্যাপ্ত চাহিদা থাকায় কৃষি বিভাগের উদ্যোগে এ উপজেলার বিভিন্ন নদ-নদীর বুকে জেগে উঠা চর ও দ্বীপচরে সম্ভাবনাময় ভুট্টা চাষ করা হয়েছে। এ জন্য চাষিদের মাঝে সময়মত কৃষি প্রণোদনা প্রদান করা হয়েছে এবং প্রয়োজনীয় পরামর্শ প্রদান করছি। প্রাকৃতিক কোনো বিপর্যয় না ঘটলে ভালো ফলন হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

Facebooktwitterlinkedinyoutube
Facebooktwitterredditpinterestlinkedin


     More News Of This Category