,

‘চাইলেই ব্যবস্থা নেওয়া যায় না’

নিজস্ব প্রতিবেদক : চাইলেই পরিবহন মালিকদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া যায় না বলে জানিয়েছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেন, ‘পরিবহন মালিকরা অনেক প্রভাবশালী। গাড়ি না নামালে দেশের বাস্তবতা অনুযায়ী চাইলেই তাদের বিরুদ্ধে কী কিছু করা যায়? তারা সংখ্যায় অনেক। বাস্তবতার নিরিখে চাইলেই ব্যবস্থা নেওয়া যায় না। চালক-মালিকরা যখন অন্যায় করে তখন সরকার ব্যবস্থা নিলে এর ফলে তারা গাড়ি নামায় না। তখন জনদুর্ভোগের পুরো দায়ভারটা মন্ত্রণালয়ের ঘাড়ে চাপে।’

মঙ্গলবার সচিবালয়ে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে সড়ক দুর্ঘটনায় মৃত্যুবরণকারী ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী নাফিয়া গাজীর পরিবারকে আড়াই লাখ টাকার চেক হস্তান্তরকালে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী এ কথা বলেন।

সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত নাফিয়া গাজীর পরিবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে ১০ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ দাবি করেছিল। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে এই টাকা চার কিস্তিতে নাফিয়া গাজীর পরিবারকে দেওয়া হবে। আজ প্রথম কিস্তি দেওয়া হয়।

মন্ত্রী সাংবাদিকদের জানান, গণপরিবহনের নৈরাজ্য পর্যালোচনায় বৈঠকে বসছেন পরিবহন মালিক, বিআরটিএ, বিআরটিসিসহ সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানগুলো। আগামীকাল বুধবার এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে।

তবে কোথায়, ঠিক কখন এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে, তা জানাননি মন্ত্রী।

সরকার কি গণপরিবহনে নৈরাজ্য ঠেকাতে ব্যর্থ, সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘সফলতা-ব্যর্থতা দুটোই তো আছে। নৈরাজ্য ঠেকাতে ব্যবস্থা না নিলে আপনারা (সাংবাদিকরা) লেখেন, সরকার নৈরাজ্য ঠেকাতে ব্যর্থ। আবার নৈরাজ্য ঠেকাতে রুট পারমিট বাতিল করতে গেলে মালিকরা এক জোট হয়ে বাস নামায় না। তখন জনদুর্ভোগ সৃষ্টি হয়। তখন আপনারা এর জন্য সরকারকে দোষারোপ করে লেখেন।’

পরিবহন মালিকরা ফের সিটিং সার্ভিস চালুর পাঁয়তারা করছে কি না, জানতে চাইলে মন্ত্রী বলেন, ‘এটা তাদের সঙ্গে বৈঠকে বসলেই বুঝা যাবে। তারা কী চায়, সেটি জানা যাবে।’

Facebooktwitterlinkedinyoutube
Facebooktwitterredditpinterestlinkedin


     More News Of This Category