,

হত্যা মামলায় একজনের ফাঁসি

নেত্রকোনা প্রতিনিধি : জেলার কলমাকান্দার বাঘাপাড় গ্রামের মাছ ব্যবসায়ী ভজন চন্দ্র দাস (২৮)  হত্যা মামলায়  চা বিক্রেতা সুরজামালকে (২৭) ফাঁসির আদেশ দিয়েছেন আদালত।

মঙ্গলবার দুপুরে জেলা ও দায়রা জজ রাশেদুজ্জামান রাজা আসামির উপস্থিতিতে এই রায় দেন।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, বাঘারপাড় গ্রামের সুনীল চন্দ্র দাসের ছেলে ভজন চন্দ্র দাসের সঙ্গে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে প্রতিবেশী ছোট সালজান গ্রামের লাহুত মিয়ার ছেলে সুরজামালের বিরোধ সৃষ্টি হয়। এরই জেরে গত ২০১৫ সালের ২২ অক্টোবর রাতে পূজা দেখে বাড়ি ফেরার পথে ভজন চন্দ্র দাস নিখোঁজ হয়। এ ঘটনায় বাবা সুনীল চন্দ্র দাস দুদিন পর ২৪ অক্টোবর কলমাকান্দা থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন।

২৬ অক্টোবর কলমাকান্দা পশ্চিম বাজারে সতিশ মজুমদারের অটো রাইস মিলের পাশে তুষের বস্তায় ভর্তি গলা কাটা  ও পোড়ানো ভজন চন্দ্র দাসের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

ওই দিনই নিহতের বাবা সুনীল চন্দ্র দাস বাদী হয়ে অজ্ঞাত আসামি করে কলমাকান্দা থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। পুলিশ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে কলমাকান্দা বাজারের চা বিক্রেতা সুরজামালকে আটক করে। আটকের পর সুরজামাল স্বীকার করে, মদপান করিয়ে ভজন চন্দ্রকে গলাকেটে হত্যার পর আগুনে পুড়িয়ে লাশ রাইস মিলের পাশে ফেলে দেয়।

মামলার তদন্ত শেষে পুশি ২০১৬ সালের ২০ মে আদালতে চার্জশিট দাখিল করে। বিচারক আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় তাকে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে হত্যার আদেশ দেন।

সরকার পক্ষে মামলা পরিচালনা করেন পিপি অ্যাডভোকেট জিএম খান পাঠান বিমল। আসামি পক্ষে ছিলেন অ্যাডভোকেট পিযুষ সরকার।

Facebooktwitterlinkedinyoutube
Facebooktwitterredditpinterestlinkedin


     More News Of This Category