,

যশোরে সন্ত্রাসীদের দু’পক্ষের বন্দুকযুদ্ধে নিহত ১

যশোর প্রতিনিধিঃ জেলায় সন্ত্রাসীদের দু’পক্ষের বন্দুকযুদ্ধে এক যুবক নিহত হয়েছে। নিহতের নাম রাজিব (২৯)। তিনি যশোর শহরের খোলাডাঙ্গা দক্ষিণপাড়া এলাকার মোহর আলী ড্রাইভারের ছেলে। তার মাথার ডানপাশে গুলিবিদ্ধ ছিল।

শনিবার ভোর চারটার দিকে শহরের খোলাডাঙ্গা এলাকা থেকে তার লাশ উদ্ধার এবং সেখান থেকে অস্ত্র গুলি ও বোমা উদ্ধার করা হয়।

কোতয়ালী থানার ওসি একেএম আজমল হুদা জানিয়েছেন, ভোর পৌঁনে চারটার দিকে তাদের কাছে খবর আসে শহরের খোলাডাঙ্গা এলাকায় সন্ত্রাসীদের দু’টি গ্রুপের মধ্যে বন্দুকযুদ্ধ হচ্ছে। এরপর পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছায়। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়। ওই সময় খোলাডাঙ্গা এলাকার সোহরাবের চাতালের পাশে এক গুলিবিদ্ধ যুবককে পড়ে থাকতে দেখে পুলিশ তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে দেয়।

তিনি জানান, ঘটনাস্থল থেকে একটি রিভলবার, এক রাউন্ড গুলি, ৫টি বোমা, দু’টি রামদা এবং একটি চাইনিজ কুড়াল উদ্ধার করা হয়।

যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগের ডাক্তার কল্লোল কুমার সাহা জানিয়েছেন, হাসপাতালে আনার আগেই তার মৃত্যু হয়েছে।

নিহতের মা আকলিমা সাংবাদিকদের জানান, ৩ এপ্রিল বিকেলে খোলাডাঙ্গা এলাকার হাজি সাহেবের বাড়ির সামনে থেকে পুলিশ পরিচয়ে সাদা পোশাকের লোকজন তাকে ধরে নিয়ে যায়।

ওসি একেএম আজমল হুদা বলেন, রাজিবের নামে হত্যা, মাদকসহ ১০টি মামলা রয়েছে। সে গত ৫ এপ্রিল পুলিশের কাছ থেকে কৌশলে হ্যান্ডকাপ খুলে পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়।

তিনি আরো জানান, এ ঘটনায় তার বিরুদ্ধে কোতয়ালী থানায় একটি মামলাও করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, গত ৫ এপ্রিল দুপুরে যশোর পৌরপার্ক এলাকা থেকে সন্ত্রাসী ভাইপো সাইদ এবং শাওন নামে দু’যুবককে আটক করা হয় বলে তাদের পরিবার দাবি করে। পুলিশ প্রথমে অস্বীকার করলেও রাতে অভিযান চলাকালে মণ্ডলগাতি এলাকা থেকে হ্যান্ডকাপ খুলে পালিয়ে যায় মর্মে তাদের বিরুদ্ধে মামলা করা হয় কোতয়ালী থানায়।

একই দিন রাতে খোলাডাঙ্গা এলাকার রাজিব নামে আরেক যুবক আটক এবং সেও পুলিশি অভিযান চলাকালে পালিয়ে যায় মর্মে আরেকটি মামলা করা হয় থানায়।

Facebooktwitterlinkedinyoutube
Facebooktwitterredditpinterestlinkedin


     More News Of This Category