,

ঘরের সৌন্দর্যে দেয়ালের সাজ

লাইফস্টাইল ডেক্স: নিজের ঘরটা সুন্দর করে সাজাতে চায় সবাই। আর তাই কতো কিছুই না করেন অনেকে। কিন্তু জানেন কি ঘরের দেয়ালেই রয়েছে আপনার গৃহের অর্ধেক সৌন্দর্য। কেননা, ঘর বা অন্দরের গুরুত্বপূর্ণ ও বড় অংশ হলো দেয়াল। তাই সবার আগে নজর দিন এই দেয়ালের দিকে। কি রঙের দেয়াল কীভাবে সাজাবেন আর কী দিয়ে সাজাবেন, ইত্যাদি ইত্যাদি।

কিন্তু অনেকেই আবার বুঝতে পারেন না কীভাবে ঘরের দেয়ালটি সাজিয়ে বা আকর্ষণীয় করে তুলবেন। তাদের জন্যই আজকের এই প্রতিবেদন। যদি চান তাহলে এই প্রতিবেদনের সাহায্যে নিজেই একটু বুদ্ধি করে সাজিয়ে নিতে পারেন নিজের ঘরের দেয়ালকে।

প্রথমে ঘরের পরিবেশ, দেয়ালের ভিন্নতা দেখে নিজেই বাছাই করে নিন কোন ধরনের দেয়ালে কী ধরনের সাজ দেয়া যেতে পারে। মনে রাখবেন, ঘরের দেয়ালের সাজে নিজের শৈল্পিক রুচির প্রকাশ। তবে দেয়ালের ক্যানভাসে শৈল্পিক আবেশ ছড়ানোর আছে বিভিন্ন রকম উপায় আছে।

দেয়ালের সাজে প্রথমে গুরুত্ব দিতে হবে রঙ নির্বাচনের প্রতি। শোবার ঘরে সবুজ রঙ ব্যবহার করলে তা অনেক বেশি মানানসই হয়। সারাক্ষণ প্রশান্তি নিয়ে আসতে সবুজ রঙের জুড়ি নেই। বসার ঘরে হলুদ রঙ মনে ফুর্তি ধরে রাখবে। খাবার ঘরে হলুদ গ্রেডের যে কোন রঙ ব্যবহার করতে পারেন।

মনস্তত্ত্ববিদদের মতে, হলুদ গ্রেডের রঙ ক্ষুধা বাড়াতে সহায়তা করে। ঘরের দেয়ালের আরেকটু সৌন্দর্য বৃদ্ধি করতে হলে- ম্যান্টস্টোন, বিভিন্ন ধরনের বোর্ড, প্লাস্টিক উড ইত্যাদি ব্যবহার করা যায়।

আজকাল ইন্টেরিয়র ট্রেন্ড হিসেবে বসার ঘরের দেয়ালে খুব বেশি টেরাকোটা ব্যবহৃত হচ্ছে। বিভিন্ন ধরনের টেরাকোটা দেয়ালে ব্যবহার করলে ঘরের সৌন্দর্য যেমন বৃদ্ধি পাবে, তেমনি রুচিশীল মনের বহিঃপ্রকাশ হবে।

ঘরের সাজে দেয়ালে নানা ধরনের ওয়ালপেপার ব্যবহার করা যাবে। তবে আবহাওয়া ও ঘরের অবকাঠামোর সঙ্গে মিল রেখে ওয়াল পেপার ব্যবহার করতে পারেন। আপনি ইচ্ছামত কল্পনার সব রঙ দিয়ে দেয়াল পেইন্ট করাতেও পারেন।

বর্তমান সময়ে আধুনিক ইন্টেরিয়রে কর্ণ মিক্স বা রাফ টেক্সারের কাজ করা হয়। এ কাজ করলে দেয়াল অমসৃণ বা খসখসে থাকবে, যা দেখতে সুন্দর লাগে। দেয়ালে আস্তর বা রঙ না দিয়ে সলিড ইটের দেয়াল রেখে দিলে খারাপ লাগবে না। চাইলে বিভিন্ন ধরনের দেয়াল ক্যাবিনেট ব্যবহার করতে পারেন। সুন্দর কিছু শো-পিস রেখে ক্যাবিনেটকে সুন্দরভাবে ফুটিয়ে তোলা যায়।

দেয়ালের সাজ ও রঙের সাথে মিল রেখে ফার্নিচার ব্যবহার করা সবচেয়ে বুদ্ধিমানের কাজ। সেই সাথে দেয়ালে বিভিন্ন ধরনের পেইন্টিং ঝোলাতে পারেন। দেয়ালের অলঙ্কার হিসেবে বিভিন্ন ধরনের চাইমার, শোপিস, কৃত্রিম ফুল, মুখোশও ব্যবহার করতে পারেন।

আজকাল বাজারে বিভিন্ন রং এর লাইট দেখতে পাওয়া যায়। যার ব্যবহার করে দেয়ালের সাজে সৌন্দর্য আনতে পারেন। ফোকাস লাইট, স্পট লাইট দেয়ালে ফেলে আলো-আঁধারির আবহ তৈরি করতে পারেন, যা দেখে যে কেউই অভিভূত হবে। তবে হ্যাঁ, এতো বেশি লাইট ব্যবহার করবেন না যাতে দেখতে বেমানান লাগে। মনে রাখবেন সিম্পলের মধ্যেও অনেক সৌন্দর্য আছে।

Facebooktwitterlinkedinyoutube
Facebooktwitterredditpinterestlinkedin


     More News Of This Category