,

বাড়াদীতে শিক্ষিকা পপির বেত্রাঘাতে মেধাবী ছাত্র সজল আহত

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ কুষ্টিয়া শহরতলীর বাড়াদী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষিকা পপি খাতৃনের বেত্রাঘাতে ৫ম শ্রেনীর মেধাবী ছাত্র সজল মোল্লা আহত হয়েছে।

গতকাল সকালে বাড়াদী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে নির্যাতনের এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় আহত শিক্ষার্থীকে উদ্ধার করে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে আসে। এ ঘটনায় আহত সজল মোল্লার পিতা বাড়াদীর মসলেম মোল্লা ওই শিক্ষককের শাস্তির দাবীতে সভাপতি বরাবর অভিযোগ দাখিল করেছে। লিখিত অভিযোগ ও বিদ্যালয় সুত্রে জানা যায়, গত মঙ্গলবার বিকেলে সজল তার সহপাঠীদের সাথে খেলা করছিল।

এ সময় ওই ম্যাডামের ছেলে পৃথিবীর গায়ে ভুলবশ্যত একটি ঢিল লাগলে তার মা পপি খাতুনকে জানালে তিনি উত্তেজিত হয়ে সজলকে রুমের মধ্যে ডেকে নিয়ে হত, পা, পিঠেসহ শরীরের বিভিন্ন জায়গায় বেধড়ক মারপাট করে।

এ বিষয়ে পপি খাতুন জানান, রাগে বশ্যবিত হয়ে সজলকে মেরেছি। আমি ক্ষমা চাই, এমনটা আর হবে না।

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শাহানাজ খাতুন জানান, এ বিষয়ে সজলের বাবা লিখিত অভিযোগ দিয়েছে। তদন্ত করে ব্যবস্তা নেওয়া হবে।

বিদ্যালয়ের সভাপতি রেজাউল হক জানান, লিখিত অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ বিষয়ে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার ইবাদত হোসেন জানান, এ ঘটনায় দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তবে এমন শিক্ষককের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবী করেছে এলাকাবাসী।

Facebooktwitterlinkedinyoutube
Facebooktwitterredditpinterestlinkedin


     More News Of This Category