,

রোহিঙ্গাদের মানবাধিকার বিষয়ে বাংলাদেশ সচেতন

কক্সবাজার প্রতিনিধি।। বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান রিয়াজুল হক বলেছেন, বাংলাদেশে অবস্থানরত রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর মানবাধিকার বিষয়ে বাংলাদেশ সচেতন রয়েছে।

শুক্রবার রাতে কক্সবাজার হিলটপ সার্কিট হাউসে সরকারি কর্মকর্তাসহ বিশিষ্টজনদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে তিনি এ সব কথা জানান।

সিভিল সার্জেন ড. পুচনু বলনে, অনুপ্রবেশ করা রোহিঙ্গাদের স্বাস্থ্যের ঝুঁকি কমাতে বিভিন্ন এনজিও সংস্থা কাজ করছে। এ পর্যন্ত অনুপ্রবেশে করা রোহিঙ্গাদের মধ্যে মালেরিয়া রোগ দেখা গেছে। কিন্তু বাংলাদেশে মানুষের মালেরিয়া নেই। তাই আমরা বিষয়টি বিবেচনায় রেখেছি।

দক্ষিণ বন বিভাগের বন কর্মকর্তা আলী কবির বলেন, রোহিঙ্গা নিয়ে সব চেয়ে বেশি সমস্যার সম্মুখীন হতে হচ্ছে আমাকে। রোহিঙ্গাদের যেখানে বসবাস করে সব সরকারি বনভূমির জায়গা। এ অবস্থায় পারছি না তাদের উচ্ছেদ করতে, পারছি না রাখতে। কারণ প্রতিনিয়ত এরা নতুন বনভূমির জায়গা দখল করছে।

কক্সবাজার সিনিয়র সাংবাদিক তোফায়েল আহমদ বলেন, রোহিঙ্গাদের মানববিক বিষয় চিন্তা করে তাকাতে দিয়েছি, কিন্তু তারা এ দেশে থেকে বিভিন্ন অপরাধ করছে। তাদের যখন সরকার চেঙ্গার চরে নিয়ে যাওয়ার কথা বলছে, রোহিঙ্গা বলছে তারা যাবে না। কেন যাবে না তারা, থাকাতে দিয়েছি বলে কি আমাদের বসতবিটা দিয়ে দিতে হবে তাদের।

সদর সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার মো. গোলাম রুহুল কুদ্দুস বলেন, রোহিঙ্গাদের নিরাপত্তা বিষয়ে আমাদের পুলিশ আনসার – বিজিবি কাল সঙ্গে নিয়ে কাজ করছে। উখিয়ার কুতুপালং এ একটা অস্থায়ী পুলিশ ফাঁড়ি করা পরিকল্পনা রয়েছে।

মানবাধিকার কমিশন বিভিন্ন সরকারি দপ্তরের প্রশ্নোত্তরে বলেন, মায়ানমার থেকে পালিয়ে আসা শরণার্থীতের স্বাস্থ্যের বিষয়টি ভালভাবে তদারকি করার জন্য সিভিল সার্জেনকে বলা হয়েছে।

তিনি বলেন, রোহিঙ্গা শরণার্থীতরা যেন গাছপালা কেটে পরিবেশ ধ্বংস না করে সে ভাবেই তাদের বসবাসের ব্যবস্থা করতে হবে।

মতবিনিময় সভায় সভাপতিত্ব করেন কক্সবাজার জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আলী হোসেন। সভায় আরো বক্তব্য রাখেন- শরণার্থী ত্রান ও প্রত্যাবাসন কমিশনার রেজোয়ান আহমেদ,বিজিবি সেক্টর কমাণ্ডার কর্ণেল রকিবুল হক, অতিরিক্ত জেলা জজ ওসমান গনি প্রমুখ। এ সময় সরকারি পদস্থ কর্মকর্তা ও আন্তর্জাতিক সাহায্য সংস্থার প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

আজ শনিবার মানবাধিকার কমিশনার চেয়ারম্যানের টেকনাফের লেদা রোহিঙ্গা ক্যাম্প ও উখিয়ার কুতুপালং ক্যাম্প পরিদর্শন করবেন এবং বিকাল ৫টায় কক্সবাজার হিলটপ সার্কিট হাউজে রোহিঙ্গা পরিস্থিতি নিয়ে সংবাদ সম্মেলন করবেন।

Facebooktwitterlinkedinyoutube
Facebooktwitterredditpinterestlinkedin


     More News Of This Category