,

হাজী রবিউল ইসলামকে চেয়ারম্যান ঘোষণা

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ কুষ্টিয়া জেলা পরিষদ নির্বাচনে হাজী রবিউল ইসলামকে চেয়ারম্যান ঘোষণা করে গেজেট প্রকাশ করেছে নির্বাচন কমিশন।
রবিবার রাতে গেজেট প্রকাশের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা নওয়াবুল ইসলাম। এর ফলে হাজী রবিউল ইসলামই যে জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন তা আনুষ্ঠানিকভাবে স্বীকৃতি পেল। যেকোন দিন চেয়ারম্যান হিসেবে শপথ নিবেন হাজী রবিউল ইসলাম।
গত ৯ ফেব্রুয়ারি রিটার্নিং অফিসার মোঃ জহির রায়হান কর্তৃক প্রেরিত ঘোষনা অনুযায়ী নির্বাচন কমিশন বাংলাদেশ, নির্বাচন কমিশন সচিবালয়, নির্বাচন ভবন, আগারগাঁও, ঢাকা। ফরম-ড [ জেলা পরিষদ নির্বাচন বিধিমালা, ২০১৬-এর বিধি ৪৩ দ্রষ্টব্য] চেয়ারম্যান পদে রবিউল ইসলাম, পিতা-আব্দুল গফুর, ৫১. রবীন্দ্র সরণী, মিলপাড়া, পোঃ মোহিনী মিলস-৭০০১, কুষ্টিয়া সদর, কুষ্টিয়াকে চেয়ারম্যান নির্বাচিত ঘোষনা করে গেজেট প্রকাশ করে।
এর আগে চেয়ারম্যান পদে জাসদ সমর্থিত প্রার্থী কুষ্টিয়া জেলা জাসদের সভাপতি গোলাম মহসিনের মনোনয়নপত্র অবৈধ ঘোষণা করেন হাইকোর্ট। এর ফলে একক প্রার্থী হিসেবে বহাল থাকে আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী হাজী রবিউল ইসলাম। হাইকোর্টের রায়ের পর নির্বাচন কমিশন হাজী রবিউলকে বিনাপ্রতিদ্বদ্বীতায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত ঘোষণা করার কথা থাকলেও নির্দিষ্ট প্রক্রিয়া শেষ করেই তা সম্পন্ন করে নির্বাচন কমিশন।
সম্প্রতি নির্বাচন কমিশন জাসদ সমর্থিত প্রার্থী গোলাম মহসিনের প্রার্থীতা বাতিল চেয়ে হাইকোর্টে রিট করলে হাইকোর্টের বিচারপতি হাসান আরিফ ও খিজির হায়াতের যৌথ বেঞ্চ গোলাম মহসিনের প্রার্থীতা বাতিল করেন।
গত ১৫ ডিসেম্বর হাইকোর্ট কুষ্টিয়া জেলা পরিষদ’র চেয়ারম্যান প্রার্থী জাসদ সমর্থিত গোলাম মহসিন প্রার্থীতা ফিরে পেলে চীফ ইলেকশন কমিশন ওই রায়ের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে আপিল করে। একই সাথে গোলাম মহসিনের প্রার্থীতা ফিরে পাবার বিষয়ে স্থগিতাদেশ বাতিল চেয়ে একমাত্র প্রতিদ্বদ্বী আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী হাজী রবিউল ইসলাম হাইকোর্টে রিট করেন।
উল্লেখ্যঃগত ৩-৪ ডিসেম্বর মনোনয়নপত্র যাচাই বাছাইয়ে কুষ্টিয়া জেলা পরিষদ’র চেয়ারম্যান পদে জাসদ সমর্থিত চেয়ারম্যান প্রার্থী গোলাম মহসিনের মনোনয়নপত্র বাতিল করে কুষ্টিয়া নির্বাচন কমিশন। এ বিষয়ে গোলাম মহসিন উচ্চাদালতে রিট করলে প্রার্থীতা ফিরে পান। গত ২২ ডিসেম্বর নির্বাচন কমিশনের নির্বাহী আদেশে শুধুমাত্র চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন স্থগিতের চিঠি আসে কুষ্টিয়া নির্বাচন কমিশন কার্যালয়ে। ফলে চেয়ারম্যান পদ ছাড়াই গত ২৮ ডিসেম্বর সাধারণ ও সংরক্ষিত সদস্য পদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়।

Facebooktwitterlinkedinyoutube
Facebooktwitterredditpinterestlinkedin


     More News Of This Category