,

মিরপুরে উপজেলা আওয়ামীলীগের প্রতিবাদ সমাবেশ

গোলাম কিবরিয়া মাসুম: কুষ্টিয়ার মিরপুরে আওয়ামীলীগ ও যুবলীগের নেতৃবৃন্দের নামে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবীতে প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।
রবিবার বিকেলে শহরতলীর ঈগল চত্বরে এ প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।
এতে মিরপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি এ্যাড. আব্দুল হালিমের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও খোকসা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব সদর উদ্দিন খাঁন।
এসময় তিনি বলেন, আওয়ামীলীগ সন্ত্রাসের রাজনীতি করে না। হামলা মামলার রাজনীতি করে না। স্বচ্ছ ও জবাবদিহীতার মধ্য দিয়ে আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দরা রাজনীতি করে। বর্তমানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে।
তিনি জাসদের নেতৃবৃন্দের উদ্দ্যেশে বলেন, আপনারা যারা আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা করেছেন তারা আগামী সাত দিনের মধ্যে মামলা তুলে নিন। তা না হলে আমরা আপনাদের বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ গ্রহণ করবো। আপনারা যারা ক্ষমতার দাপট দেখিয়ে এ ধরনের হত্যাকান্ড চালিয়ে আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দের উপরে দোষ চাপাচ্ছেন তারা সাবধান হয়ে যান। বর্তমান সরকারের সাথে একত্রে মিশে আপনারা যারা ষড়যন্ত্র করছেন তারা বাইরে এসে দেখান। আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দ আপনাদের কঠোর হাতে দমন করবে।


তিনি আরো বলেন, আওয়ামীলীগ নেতা ডাঃ সাবুকে আপনার হত্যা করেছেন। আমরা শুধু মাত্র শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ মিছিল করেছি মাত্র। আর আপনারা আমাদের নামে মিথ্যা মামলা দায়ের করেছেন। আপনারা নিজেরা হত্যা করে তা ধামাচাপা দেওয়ার জন্য আমাদের নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে এ মামলা করছেন।
তিনি আরো বলেন, আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জনগণ আপনাদের জবাব দিয়ে দেবে।
তিনি জাসদ সভাপতি হাসানুল হক ইনু’র উদ্দ্যেশে বলেন, নৌকায় উঠে আপনি মিরপুর-ভেড়ামারায় নির্বাচন করে এমপি হয়েছেন। বর্তমানে মন্ত্রী হয়েছেন। আপনি যদি নৌকা বাদ দিয়ে মশাল প্রতিকে নির্বাচন করেন তাহলে এমপি হওয়া তো দুরের কথা ইউনিয়ন চেয়ারম্যান ও হতে পারবেন না। আপনি আওয়ামীলীগের ছায়াতলে এসেছেন বলেই নির্বাচনে জয় লাভ করেছেন। তবে এই মিরপুর ভেড়ামারার মানুষ আর আপনাকে চাই না। আপনি ও আপনার কর্মী বাহিনী এই মিরপুরে যা শুরু করেছেন তাতে আগামী নির্বাচনেই তার ফল পাবেন।
তিনি বিএনপি’র নেতাকর্মীদের উদ্দ্যেশ্যে বলেন, আপনারা যারা মনে করছেন মিরপুর জাসদ আর আওয়ামীলীগের দ্বন্দের মধ্যদিয়ে আপনারা ফাইদা লুটবেন। তা এই মিরপুরে হবে না। আপনারা যদি নির্বাচনে অংশ নেন তাহলে সাধারন জনগণই আপনাদের ভোটের মাধ্যমে জবাব দিয়ে দেবে। কারন এই মিরপুর তথা কুষ্টিয়ার মাটি আওয়ামীলীগের ঘাঁটি। এখানে বিএনপি জামায়াতের কোন ঠাই নেয়।
এসময় মিরপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান কামারুল আরেফিনের পরিচালনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক আজগর আলী, সাংগাঠনিক সম্পাদক বাবু স্বপন কুমার ঘোষ, মিরপুর পৌর মেয়র হাজ্বী এনামুল হক, মিরপুর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান শারমিন আক্তার নাছরিন, উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি আনোয়ারুজ্জামান বিশ্বাস মজনু, রবিউল ইসলাম রবি, জসিম উদ্দিন, যুগ্ম-সাধারন সম্পাদক আনোয়ারুল ইসলাম মালিথা, আতাহার আলী, শিক্ষা ও মানব সম্পদ বিষয়ক সম্পাদক হাজ্বী মহাম্মদ আলী জোয়ার্দ্দার, জেলা যুবলীগের আহবায়ক রবিউল ইসলাম, যুগ্ম-আহবায়ক আবু তৈয়ব বাদশা, দৌলতপুর আড়িয়া ইউপি চেয়ারম্যান সাইদ আনসারী বিপ্লব, মিরপুর উপজেলা যুবলীগের সভাপতি আবুল কাশেম জোয়ার্দ্দার, মিরপুর পৌর আওয়ামীলীগের যুগ্ম-আহবায়ক ফেরদৌস ওয়াহেদ জোয়ার্দ্দার, আমবাড়ীয়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি আব্দুল বারী টুটুল, সদরপুর ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি আশরাফুল ইসলাম, আমলা ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারন সম্পাদক মসলেম উদ্দিন, যুবলীগ নেতা জাহাঙ্গীর আলম, উপজেলা শ্রমিকলীগের সভাপতি হামিদুর রহমান, ছাত্রলীগের আহবায়ক আলীমুর রেজা সুমন প্রমুখ।  
উল্লেখ্য গত ১১ জানুয়ারী উপজেলার আমবাড়ীয়ায় প্রকাশ্যে আওয়ামীলীগ নেতা ডাঃ সাবুকে হত্যা করে দূর্বৃত্তরা। এ ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়ে মিরপুর উপজেলা আওয়ামীলীগ ও যুবলীগের নেতৃবৃন্দরা এক বিক্ষোভ মিছিল করে। এ ঘটনায় গত ৩০ জানুয়ারী উপজেলার ৬১জন আওয়ামীলীগ ও যুবলীগের নেতাকর্মীকে আসামী করে মিরপুর থানায় একটি মামলা দায়ের করে জাসদের নেতাকর্মীরা।  

Facebooktwitterlinkedinyoutube
Facebooktwitterredditpinterestlinkedin


     More News Of This Category