,

বরিশালে বিষমুক্ত সবজী চাষে বেকার যুবকের সফলতা

বরিশাল প্রতিনিধিঃ বিষমুক্ত সবজী চাষ করে নিজের ভাগ্যের পাশাপাশি অন্যের ভাগ্য বদল করে দিয়েছেন জেলার গৌরনদী উপজেলার পশ্চিম বেজহার গ্রামের এইচএসসি পাশ করা বেকার যুবক মোঃ সোহেল সরদার। নিজের ও অন্যের জমিতে সবজী চাষ করে তিনি এখন স্বাবলম্বী হয়েছেন। পাশাপাশি অন্য কৃষকদেরও সবজী চাষ করার জন্য তিনি উদ্বুদ্ধ করছেন।
তার সবজী চাষের পদ্ধতি দেখে মাহিলাড়া বাজারের এক সময়ের চায়ের দোকানী সুজন সিকদার, পশ্চিম বেজহার গ্রামের কৃষক লতিফ শিকদার, ধলু সরদার, হান্নান শিকদারসহ অনেকেই এখন বিষমুক্ত সবজি চাষ করছেন। অনেক নারীরাও এখন বিষমুক্ত সবজি চাষে এগিয়ে এসেছেন। সোহেল সরদার জানান, একসময়ে তিনি চাকুরীর পিছনে হন্য হয়ে ঘুরে ব্যর্থ হয়েছেন। সবখানে নিরাস হয়ে পরবর্তীতে তিনি উপজেলা উপ-সহকারি কৃষি কর্মকর্তা মোঃ সিরাজুল ইসলামের পরামর্শে স্থানীয় কৃষি অফিস থেকে প্রশিক্ষণ নিয়ে সবজি চাষ শুরু করেন। বর্তমানে তার জমিতে টমেটো, লাউ, করল্লার, ফুলকপিসহ সাত প্রকারের সবজী রয়েছে। তিনি আরও জানান, কৃষি অফিসারদের আন্তরিকতা ও মাহিলাড়া ইউনিয়ন পরিষদের কৃষি বান্ধব চেয়ারম্যান সৈকত গুহ পিকলুর কৃষির প্রতি উদ্বুদ্ধকরন সভা, মাঠপর্যায়ে তাদের তদারকিসহ সবধরনের সহযোগীতার কারণে গোটা মাহিলাড়া ইউনিয়ন এখন কৃষিতে বিপ্ল¬ব ঘটেছে। ইউনিয়নের প্রতিটি এলাকার সারি সারি সবজি ক্ষেতে থোকায় থোকায় ঝুলছে টমোটো, করল্লা, লাউ, কুমড়াসহ নানা ধরনের সবজী।
গৌরনদী উপজেলা উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা মোঃ সিরাজুল ইসলাম জানান, কৃষি সমৃদ্ধ মাহিলাড়া ইউনিয়নের কৃষকদের বিষমুক্ত সবজী চাষের জন্য বিভিন্ন মাঠ দিবসের মাধ্যমে তারা প্রশিক্ষণ দিয়ে আসছেন। এসব প্রশিক্ষণের সুফল কাজে লাগিয়ে কৃষকরা উপকৃত হচ্ছেন। কৃষকরা এখন কীটনাশকের পরিবর্তে যাদুর ফাঁদ ব্যবহার করে বেশ সফলতাও অর্জন করেছেন। মাহিলাড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সৈকত গুহ পিকলু বলেন, কৃষকদের বিষমুক্ত সবজি চাষে উদ্বুদ্ধ করার লক্ষ্যে বার্ষিক বাজেট সভায় ইউনিয়নের শ্রেষ্ঠ কৃষক নির্বাচন করে পুরস্কার দেওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে। এছাড়াও কীটনাশক ও রাসায়নিক সারের ব্যবহাররোধে ভার্মি কম্পোষ্ট সারের প্লান্ট তৈরির জন্য ইউনিয়ন পরিষদের পক্ষ থেকে আর্থিক সহায়তার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

 

Facebooktwitterlinkedinyoutube
Facebooktwitterredditpinterestlinkedin


     More News Of This Category