,

গ্রেফতারের সাড়ে ৩ ঘণ্টা পর ‘বন্দুকযুদ্ধ’, পায়ে গুলিবিদ্ধ

খুলনা প্রতিনিধি: খুলনায় গ্রেফতারের সাড়ে ৩ ঘণ্টা পর পুলিশ হেফাজতে থাকা হত্যা মামলার এক আসামি ‘বন্দুকযুদ্ধে’ গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। রবিবার (২২ জানুয়ারি) দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে  নগরীর বাগমারায় এ ‘বন্দুুকযুদ্ধ’ হয় বলে পুলিশ দাবি করেছে। গুলিবিদ্ধ আসামির নাম আজিজুল ইসলাম (২৩)।
সে বাগেরহাটের মোড়েলগঞ্জ উপজেলার বিজয়পুর গ্রামের হাবিবুল ইসলামের ছেলে। তার বিরুদ্ধে খুলনা, সোনাডাঙ্গা ও লবনচরা থানায় ৭টি মামলা রয়েছে। নগরীর শহীদ শেখ আবুল কাশেম স্মৃতি মহাবিদ্যালয়ের শিক্ষক চিত্তরঞ্জন বাইন (৪৫) হত্যাকা-ে জড়িত থাকার অভিযোগে রবিবার (২২ জানুয়ারি) রাত ১১টার দিকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

খুলনা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ শফিকুল ইসলাম জানান, কলেজ শিক্ষক চিত্তরঞ্জন বাইন হত্যায় জড়িত মোঃ রাজু মুন্সি ওরফে গলাকাটা রাজুকে উন্নত প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে গত ১৬ জানুয়ারি নগরীর  হাদিস পার্ক এলাকা থেকে গ্রেফতার করেছিল পুলিশ।
এরপর রবিবার(২২ জানুয়ারি) রাত ১১টার দিকে আজিজুল ইসলামকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারের পর প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে সে জানায়, তার কাছে অস্ত্র আছে। তার দেয়া তথ্যমতে, রবিবার দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে নগরীর বাগমারা এলাকায় তাকে নিয়ে অস্ত্র উদ্ধাওে যায় পুলিশ।  এ সময়ে আজিজুলের সহযোগিরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলিবর্ষণ শুরু করলে পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়। একপর্যায়ে সহযোগিদের গুলি আজিজুলের বাম পায়ে বিদ্ধ হয়। এবং তারা পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়।

ওসি শফিকুল ইসলাম দাবি করেন, বন্দুকযুদ্ধে তিনিসহ এস আই মোঃ কামাল উদ্দিন, এস আই মোঃ আব্দুল হান্নান, এএসআই মোঃ মামুন হোসেন ও এএসআই শুভেন্দু কুমার পাল আহত হয়েছেন। আহত পুলিশ সদস্যরা প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছেন। পায়ে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় আসামি আজিজুল ইসলামকে প্রথমে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে তাকে ঢাকায় পাঠানো হয়।
 অভিযানে ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ একটি বিদেশি পিস্তল ও দুই রাউন্ড গুলি উদ্ধার করে।

Facebooktwitterlinkedinyoutube
Facebooktwitterredditpinterestlinkedin


     More News Of This Category