,

বাংলাদেশের বিপক্ষে থাকছেন না ডি ভিলিয়ার্স

খেলা ডেক্স: ইনজুরির কারণে নিজের টেস্ট ক্যারিয়ারে আরও বিরতি নিচ্ছেন দক্ষিণ আফ্রিকান ব্যাটসম্যান এবি ডি ভিলিয়ার্স। ফলে পুরো ২০১৭ সালটাই সাদা পোশাকে মাঠে নামা হবে না তার। তাই নিজেদের মাটিতে বাংলাদেশ সফরেও থাকবেন না। ২০১৭-১৮ মৌসুমে ভারত সিরিজ দিয়েই ফেরার ইচ্ছে প্রকাশ করেছেন তিনি।

চলতি বছরের সেপ্টেম্বর-অক্টোবরে দক্ষিণ আফ্রিকায় খেলবে বাংলাদেশ। ২৮ সেপ্টেম্বর শুরু হবে প্রথম টেস্ট, ৬ অক্টোবর দ্বিতীয়টি।

এ প্রসঙ্গে ডি ভিলিয়ার্স বলেন, ‘টেস্টের জন্য আমি এখনও প্রস্তুত না। আমি আমার কনুইয়ের ইনজুরি নিয়ে চিন্তিত। তবে সার্জনরা বলেছে এটা ঠিক হয়ে যাবে। আর আমিও আত্মবিশ্বাসী।’

এদিকে জাতীয় দলের হয়ে এ সময় শুধুমাত্র সীমিত ওভারের ক্রিকেট খেলবে ভিলিয়ার্স। আর আইপিএল ছাড়া কোনো টি-টোয়েন্টি লিগেও মাঠে নামবেন না। তবে টেস্টে ফেরার আগে দক্ষিণ আফ্রিকান প্রথম শ্রেণীর দল টাইটান্সের হয়ে প্রস্তুতি সারবেন।

তিনি আরও বলেন, ‘তিন ফরম্যাটের ক্রিকেট খেললে আমার কাছে মনে হয়, পৃথিবীটা যেন আমার কাঁধের ওপর রয়েছে। আর আইপিএল ছাড়া আমি অন্য কোনো লিগে এ সময় আর খেলছি না।’

নিজ দেশে আগামী ভারত সফর এখনও চূড়ান্ত করেনি প্রোটিয়ারা। তবে এটি ২০১৮ সালের জানুয়ারি-ফেব্রুয়ারিতে হতে পারে। তার আগে নিউজিল্যান্ড ইংল্যান্ড ও বাংলাদেশের বিপক্ষে টেস্ট ক্রিকেটে খেলবেন না ডি ভিলিয়ার্স।

এর একদিন আগে দীর্ঘ সময় ইনজুরিতে পড়া দক্ষিণ ডি ভিলিয়ার্স আগামী মার্চে নিউজিল্যান্ড সফরের টেস্ট সিরিজ থেকে নিজেকে প্রত্যাহার করে নেন। কনুইয়ের ইনজুরি থেকে এখনও পুরোপুরি ফিট হতে পারেননি অভিজ্ঞ এ ক্রিকেটার। তবে আশাপাশে ছড়িয়ে পড়া তার অবসরের গুজবকে নাকচ করে দিয়েছেন তিনি। 

সম্প্রতি ডি ভিলিয়ার্স জানান, সীমিত ওভারের ক্রিকেটে তার বর্তমান লক্ষ্য ২০১৯ ওয়ানডে বিশ্বকাপ। এর পরেই লঙ্গার ভার্সনের ক্রিকেট থেকে তিনি সরে যাবেন বলে বিভিন্ন মহলে গুজব ছড়ায়।

এ প্রসঙ্গে এক সাক্ষাতকারে প্রোটিয়াদের ওয়ানডে দলের অধিনায়ক বলেছিলেন, ‘আমি নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজে থাকতে পারছি না। আমার নিজেকে প্রস্তুত করতে আরও সময়ের প্রয়োজন। আমার লক্ষ্য অবশ্যই ২০১৯ বিশ্বকাপ। আমি এই শিরোপাটি জিততে চাই।’

ডি ভিলিয়ার্স আরও যোগ করেন, ‘অবশ্যাই আমি টেস্ট ক্রিকেট থেকে অবসর নিচ্ছি না। আমি কোনো ফরম্যাটেই অবসর নিচ্ছি না। আর এটাই নিশ্চিত। এমন কোনো কিছুই আমি করছি না।’

গত বছরের জানুয়ারির পর সাদা পোশাকে আর খেলেননি ডি ভিলিয়ার্স। সেবার ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ঘরের মাঠের টেস্ট সিরিজে হাশিম আমলার উত্তরসূরি হিসেবে অধিনায়ক হন তিনি। তবে জুলাইয়ে ক্যারিবীয়ান প্রিমিয়ার লিগে ইনজুরিতে পড়েন। 

আর এই ইনজুরি তাকে বেশ ভুগিয়েছে। ঘরের মাঠে অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে ওয়ানডে সিরিজের পর তাদেরই মাটিতে টেস্ট সিরিজে খেলতে পারেননি। পরে নিজ দেশে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষেও টেস্ট সিরিজে খেলেননি। এ সময় প্রোটিয়াদের টেস্ট অধিনায়ক পাকাপাকি ভাবে করা হয় ফাফ ডু প্লেসিসকে।

জাতীয় দলের হয়ে ডি ভিলিয়ার্স এখন পর্যন্ত ১০৬টি টেস্ট খেলেছেন। যেখানে ৫০.৪৬ গড়ে ৮ হাজার ৭৪ রান করেছেন। আছে ২১টি সেঞ্চুরি ও ৩৯টি হাফসেঞ্চুরি।

Facebooktwitterlinkedinyoutube
Facebooktwitterredditpinterestlinkedin


     More News Of This Category