,

চট্টগ্রামে অপহৃত শিশু উদ্ধার: গ্রেফতার ৫

চট্টগ্রাম ব্যুরোঃ দীর্ঘ ২৭ ঘণ্টার অভিযান শেষে চট্টগ্রামে অপহৃত সাড়ে ৩ বছরের শিশু আহসান হাবিবকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। এসময় অপরহণে জড়িত থাকা দুই নারীসহ ৫ জনকে গ্রেফতার করা হয়।

শুক্রবার শিশুটিকে উদ্ধার করা হয়। গ্রেফতাররা হলেন- নোয়াখালির মাইজদীর আশেকুর রহমান খোকা, হাটহাজারীর সিএনজি চালক সিরাজ ড্রাইভার, ফটিকছড়ির দোলন শীল ও রেখা শীল রাউজানের নীলিমা শীল।

চান্দগাঁও থানায় অপহৃত শিশু আহসান হাবিবের মা হালিমা আকতার রেখা জানান, প্রায় সাড়ে ৫ বছর আগে নাগর নামে বরিশালের এক লোকের সাথে তার বিয়ে হয়। বিয়ের কিছুদিন পর স্বামী তাকে ফেলে চলে যায়। তাদের সংসারে আহসান হাবিব নামে এক ছেলে রয়েছে। ভিক্ষা বৃত্তি করে তিনি জীবনধারণ করছিলেন। এরই মধ্যে একদিন ভিক্ষা করার সময় আশেকের কামাল খোকা নামে একজনের সাথে তার পরিচয় হয়। তিনি তাকে বিয়ের আশ্বাস এবং সন্তানকে মানুষ করার প্রতিশ্রুতি দিয়ে নগরীর চান্দগাঁও থানার শমসেরপাড়া এলাকায় বাসাভাড়া নিয়ে বসবাস করতে থাকেন। এরই মধ্যে আশেকের কামাল গত বছরের ২৭ ডিসেম্বর স্থানীয় মাঠে খেলার কথা বলে শিশু আহসান হাবিবকে নিয়ে পালিয়ে যায়।

একমাত্র শিশু সন্তানকে হারিয়ে নি:সঙ্গ হয়ে পড়েন রেখা। পরে কথিত স্বামীর সাথে মোবাইলে কথা বলে ছেলেকে ফিরিয়ে দেয়ার অনুরোধ জানিয়েও ব্যর্থ হন রেখা। শেষ পর্যন্ত বাধ্য হয়ে গত ৬ জানুয়ারি চান্দগাঁও থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন তিনি।

চান্দগাও থানার এস আই মো. কাদের জানান, অভিযোগ পাওয়ার পর আমরা মোবাইল ফোনের সুত্র ধরে নোয়াখালি, কুমিল্লা, হাটহাজারী, ফটিকছড়িতে টানা ২৭ ঘন্টা অভিযান চালিয়ে রেখার কথিত স্বামী এবং অপহরণকারী আশেকুর রহমানকে গ্রেফতার করি।

তিনি বলেন, জানতে পারি সিরাজ ড্রাইভারের কাছে একলাখ টাকার বিনিময়ে শিশুটিকে বিক্রি করে দেয়া হয়। আমরা পরে অভিযান চালিয়ে হাটহাজারী থেকে সিরাজ ড্রাইভারকে আটক করি। সে জানায় শিশুটি সে ফটিকছড়িতে বিক্রি করে দিয়েছে। তার স্বীকারোক্তিতে ফটিকছড়ির থেকে দোলন শীল ও তার ভাবী রেখা শীলকে আটক করি। আটক দুইজন জানায় রাউজানের নীলা শীল নামে এক নিকট আত্মীয়ের জন্য শিশুটিকে তারা কিনেছিলো। পরে রাউজানে অভিযান চালিয়ে শিশু আহসান হাবিবকে উদ্ধার এবং নীলা শীলকে গ্রেফতার করা হয়।

Facebooktwitterlinkedinyoutube
Facebooktwitterredditpinterestlinkedin


     More News Of This Category