,

ভেড়ামারায় কবর থেকে যুবকের লাশ উত্তোলন

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ কুষ্টিয়া ভেড়ামারা উপজেলায় যুবকের রহস্যজনক মৃত্যুর তথ্য উদঘাটনে ৫ মাস পর আদালতের নির্দেশে কবর থেকে লাশ উত্তোলন করেছে প্রশাসন। বুধবার দুপুরে ভেড়ামারা উপজেলার সাতবাড়ীয়া গোরস্থান থেকে শান্ত হোসেন (২৫) নামের এ যুবকের লাশ উত্তোলন করা হয়।
ভেড়ামারা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা নুর হোসেন খন্দকার জানান, ২০১৬ সালের ৮ আগস্ট ভেড়ামারা উপজেলার বিলশুখা গ্রামের শান্ত হোসেন প্রতিবেশী চুমকি খাতুন বুড়ির বাড়িতে দাওয়াত খেয়ে নিজ বাড়িতে ফিরে গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়ে।
পরিবারের লোকজন তাৎক্ষণিক ভেড়ামারা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে নিয়ে গেলে সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে স্থানান্তরের পরামর্শ দেন। এ সময় কুষ্টিয়া হাসপাতালের উদ্দেশে রওনা হলে পথেই তার মৃত্যু হয়।
ঘটনার সময় স্থানীয় প্রভাবশালীদের চাপের মুখে পরিবারের লোকজন ময়নাতদন্ত ছাড়ায় নিহতের লাশ দাফন করেন।
একপর্যায়ে ঘটনার ১৫ দিন পর নিহতের বাবা আশাদুল ইসলাম বাদী হয়ে চুমকি খাতুন বুড়িসহ তার পরিবারের কয়েকজনকে আসামি করে কুষ্টিয়া বিচারিক আদালতে মামলা করেন। আদালত দীর্ঘ ৫ মাস পর ঘটনার রহস্য উদঘাটনে নিহতের লাশ কবর থেকে তুলে ময়নাতদন্তের নির্দেশ দেন।
এ সময় ভেড়ামারা উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভুমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. সিহাব রায়হান, পুলিশ ব্যুরো ইনভেষ্টিকেশন (পিবিআই) ও পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাসহ স্থানীয়দের উপস্থিত থেকে লাশ উত্তোলন করেন।

Facebooktwitterlinkedinyoutube
Facebooktwitterredditpinterestlinkedin


     More News Of This Category