,

শিউলির নিরাপত্তা কে দেবে?

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি:ঝিনাইদহে শ্লীলতাহানিতে ব্যর্থ হয়ে গৃহবধূকে কুপিয়ে জখম করেছে এক বখাটে। এ ঘটনায় ঝিনাইদহ সদর থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন নির্যাতিত ওই গৃহবধূ। এরপরেও থেমে নেই বখাটে ওই যুবক। নানা রকম হুমকি ধামকি দিচ্ছে বাদী ও তার পরিবারকে। ফলে চরম নিরাপত্তাহীনতায় দিন কাটাচ্ছে বাদী ও তার পরিবার। ঘটনাটি ঘটেছে ৯ ডিসেম্বর ঝিনাইদহ সদর উপজেলার দক্ষিণ নারায়ণপুর গ্রামে।লিখিত অভিযোগে থেকে জানা গেছে, দক্ষিণ নারায়ণপুর গ্রামের শিউলি বেগমকে (৩৬) ঘোড়শালা জামতলা পাড়ার লুৎফর মণ্ডলের ছেলে মোখলেছ মণ্ডল বিভিন্ন সময় উত্ত্যক্ত করে আসছিল। এরই ধারাবাহিকতায় ৯ ডিসেম্বর দুপুরে শিউলি তার বাবার ঘোড়শালা গ্রামের মাঠে আবাদকৃত মরিচ তুলতে যায়। এ সময় ওই বখাটে যুবক মোখলেছ শিউলিকে একা পেয়ে শ্লীলতাহানির চেষ্টা করে। ব্যর্থ হয়ে বখাটে মোখলেছ শিউলিকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে ও পিটিয়ে মারাত্মক জখম করে এবং তার গলায় থাকা একটি স্বর্ণের চেইন ছিনিয়ে নেয়। পরে শিউলির আত্মচিৎকারে লোকজন ছুটে আসলে বখাটে মোখলেছ পালিয়ে যায়। সে সময় স্থানীয় লোকজন তাকে উদ্ধার করে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে ভর্তি করে।

এদিকে ঘোড়শালা গ্রামের মাতব্বর তোফাজ্জেল মণ্ডলও নির্যাতিত গৃহবধূ ও তার পরিবারকে মামলা না করার জন্য হুমকিধামকি দিয়ে আসছিলেন। পরে শিউলি গোপনে পালিয়ে এসে রবিবার ঝিনাইদহ সদর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেন।

ঝিনাইদহ সদর থানার ওসি হরেন্দ্রনাথ সরকার সোমবার জানান, এ ঘটনায় একটি অভিযোগ পেয়েছি। এটি এজাহার হিসেবে গণ্য করে দোষীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Facebooktwitterlinkedinyoutube
Facebooktwitterredditpinterestlinkedin


     More News Of This Category