,

ছেলে হত্যার বিচারের চেয়ে মুক্তিযোদ্ধার সংবাদ সম্মেলন

মিরপুর প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়ার মিরপুরে ছেলে হত্যার বিচারের দাবীতে এক মুক্তিযোদ্ধা পিতা সংবাদ সম্মেলন করেছেন।

রবিবার বিকেলে মিরপুর বাজারের এক জনাকীর্ন সংবাদ সম্মেলনের উপজেলা জাসদের সাবেক সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা চাষী নজরুল ইসলাম তার ছেলে আমলা ইউনিয়ন যুবজোটের সাবেক আহ্বায়ক আইনুল ইসলাম হত্যাকান্ডের সুষ্ঠু বিচার দাবী করেন। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, চলতি বছরের ২৪ নভেম্বর স্বাধীনতা বিরোধী পরিবারের সন্তান আমলা ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য জামায়াত নেতা হাসমত আলী গংরা আমার ছেলেকে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে গুরুতর জখম করে। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপে¬ক্সে ভর্তি করে। সেখানে তার অবস্থার অবনতি হলে কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও সর্বশেষ ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। শুক্রবার সকালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় সর্বস্তরের জনগণ হাসমত আলীকে জামায়াত নেতা আখ্যায়িত করে এলাকায় পোষ্টারিং করে। পরবর্তীতে ১৪ ডিসেম্বর আমলা প্রেসক্লাবের সংবাদ সম্মেলনে হাসমত আলী নিজেকে আওয়ামীলীগের কর্মী এবং এ হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত নয় বলে দাবী করেন। যাহা ১৫ ডিসেম্বর স্থানীয় বিভিন্ন দৈনিক পত্রিকায় প্রকাশিত হয়। জামায়াতের ছাত্র সংগঠন ছাত্রশিবিরের রাজনীতির সাথে যুক্ত ছিলেন হাসমত আলী। এছাড়াও তার দাদা বাক্কী মেম্বর আল বদর নেতা এবং চাচা মঙ্গল ও পটল রাজাকার ছিলো। সে কিভাবে নিজেকে আওয়ামীলীগের কর্মী বলে দাবী করেন এটা মুক্তিযোদ্ধা ও মুক্তিযোদ্ধার পক্ষে জনগণের বোধগম্য নহে। তিনি নিজেকে এ হত্যাকান্ড থেকে আড়াল করতে মিথ্যা ভিত্তিহীন ও বানোয়াট কল্পকাহিনী দিয়ে সংবাদ সম্মেলন করেছে। আমি এ মিথ্যাচারের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে ছেলে হত্যার সাথে জড়িত হাসমত আলী গংদের কঠোর শাস্তির দাবী করছি। এ সময়ে উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডের কামান্ডার নজরুল করিম, পৌর কমান্ডের সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা জামাত আলী, নিহতের ভাই ময়নুল ইসলাম, মামুন আল হাসান, রজন আলী, মামা আব্দুল আজিজ, আফাজ আলী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

Facebooktwitterlinkedinyoutube
Facebooktwitterredditpinterestlinkedin


     More News Of This Category