,

বীর মুক্তিযোদ্ধারা আমাদের দেশের গর্ব: কামারুল আরেফিন

আর.এ নান্নু: ৪৫ তম জাতীয় মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে কুষ্টিয়ার মিরপুর এক বিজয় র‌্যালী ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
আজ শুক্রবার বিকেলে উপজেলার কাকিলাদহে বাজারে এ আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।
এতে সদরপুর ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি আশরাফুল ইসলামের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন মিরপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান কামারুল আরেফিন।
এসময় তিনি বলেন বীর মুক্তিযোদ্ধারা আমাদের দেশের গর্ব। তাদের কারনেই আজকে আমরা স্বাধীন ভাবে চলাফেরা করতে পারছি। মায়ের ভাষা বাংলা ভাষায় কথা বলতে পারছি। তাদের অবদান বাংলাদেশের কোটি মানুষের মনে খোদায় করে লেখা থাকবে।
তিনি আরো বলেন, বর্তমানে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মুক্তিযোদ্ধাদের জীবনমান উন্নয়নের জন্য বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহন করেছেন। বেগম খালেদা জিয়ার আমলে রাজাকার ও আল বদররা বেশি সুবিধা পেয়েছিলো। কিন্তু বর্তমান সরকার সেইসব যুদ্ধাপরাধীদের বিচার শুরু করেছে। কোন যুদ্ধাপরাধীর এই স্বাধীন বাংলাদেশে স্থান হবে না। আগামী ৪৬তম বিজয় দিবস হোক রাজাকার ও যুদ্ধাপরাধী মুক্ত।
তিনি আরো বলেন পৃথিবীর বুকে বাংলাদেশের গৌরবময় ইতিহাস রয়েছে। কোন দেশ নয় মাসে যে স্বাধীনতা লাভ করতে পারে তার প্রমান হলো বাংলাদেশ। জাতীর জনক বঙ্গবন্ধুর ডাকে সাড়া দিয়ে সমগ্র বাঙ্গালী একত্রিত হয়ে শত্রুর মোকাবেলা করেছিলো। আমরা গর্বিত আমরা বাঙ্গালী।
এসময় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন সদরপুর ইউপি চেয়ারম্যান রবিউল হক রবি, আমলা ইউপি চেয়ারম্যান আনোয়ারুল ইসলাম মালিথা, মালিহাদ ইউপি চেয়ারম্যান আলমগীর হোসেন, আমবাড়ীয়া ইউপি’র সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুল বারী টুটুল, কুর্শা ইউপি’র সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুল হান্নান, সদরপুর ইউনিয়ন মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার রাহাত আলী, আমলা ইউনিয়ন মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আব্দুর রশিদ ফুরকান, বীর মুক্তিযোদ্ধা সেকেন্দার আলী, সদরপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি আবু বক্কর চৌধুরী, মালিহাদ ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি আকরাম হোসেন, মিরপুর পৌর যুবলীগের আহবায়ক ফেরদৌস ওয়াহেদ জোয়ার্দ্দার, উপজেলা যুবলীগের সাধারন সম্পাদক আব্দুল হালিম বিশ্বাস, দৌলতপুর উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম-আহবায়ক জাহাঙ্গীর আলম প্রমুখ।

Facebooktwitterlinkedinyoutube
Facebooktwitterredditpinterestlinkedin


     More News Of This Category