,

লিবিয়ায় ১৩ বাংলাদেশী অপহরণের পর ৭ জন উদ্ধার

লিবিয়া প্রতিনিধিঃ লিবিয়ায় মুক্তিপণের দাবিতে ১৩ জন বাংলাদেশীকে অপহরণ পর ৭ জন কে উদ্ধার করা সম্ভব হলেও এখনো সন্ত্রাসীদের কব্জায় রয়েছে ৬ বাংলাদেশী । আর ঐ ৬ জনের অবস্থান এখনো কোম্পানী বা স্থানীয় প্রশাসন নিশ্চত হতে না পারায় নতুন করে হতাশার সৃষ্টি হয়েছে । জানাযায়,লিবিয়ার ত্রিপলী গ্যারগ্যারেস নামক স্থানে লিবিয়ানা ক্লিনার কোম্পানী ( শরিকা নাদাপা ) তে কর্মরত বাংলাদেশী আহাম্মদ আলী, আশরাফ হোসেন, জামাল, খলিল, রাশেদ,জুয়েল,হাফিজ, জামান, মঈন,তুহিন,জিয়ারত,আনোয়ার,জুয়েলসহ ১৩ জন বাংলাদেশী গত বুধবার পাশের একটি পানির কোম্পানীতে কাজ যায় । কাজ শেষে বুধবার দুপুর ৩ টার দিকে কোম্পানীর একটি গাড়িতে করে বাসায় ফিরছিল তারা । পথিমধ্যে পুলিশের পোশাক পড়া ৪/৫ জনের সশস্ত্র সন্ত্রাসী গ্রুপ তাদের গতিরোধ করে ১৩ জন কে অস্ত্রের মুখে অপহরণ করে নিয়ে যায় । একটি গোডাউনে নিয়ে তাদের কাছে থাকা মোবাইল ছিনিয়ে নেয় । এ সময় হাফিজের কাছে থাকা ৭ শ ডলার ও আহাম্মদের কাছে থাকা ১২ শ ডলার ছিনিয়ে নিয়ে শুধু আহাম্মদ কে ১ দিন পর শুক্রবার দুপুরে ছেড়ে দেয় সন্ত্রাসীরা । পরে ৬ জন করে দূটি গ্রুপে বাংলাদেশীদের দূটি স্থানে আটকে রাখে সন্ত্রাসীরা । এদিকে আহাম্মদ কে ছেড়ে দেয়ার পর তার এবং অপহরণকারী মোবাইল নম্বরের সূত্র ধরে রোববার কোম্পানীর প্রশাসন ও স্থানীয় প্রশাসন ঐ সন্ত্রাসীদের ডেরাই অভিযান চালাই । এ সময় প্রশাসনের উপস্থিতি টের পেয়ে অপহরণকারীরা আস্তনা থেকে পালিয়ে যায় । পরে একটি রুমে আটক অবস্থায় ৬ বাংলাদেশীকে উদ্ধার করে নিয়ে আসে । এদিকে ৬ জন উদ্ধার হলেও এখনো অপর ৬ বাংলাদেশী কুমিল্লার জামাল, ভৈরবের তুহিন, বগুড়ার খলিলুর রহমান,হাফিজ,চট্টগ্রামের আনোয়ার হোসেন ও যশোরের শহারদকে উদ্ধার সম্ভব হয়নি । উদ্ধার হওয়া বাংলাদেশীরা জানান, তাদের অপহরণ করার পর ৬ জন করে দুটি গ্রুপ তাদের নিয়ে যায় । তবে অপর ৬ জন কে কোথায় আটক করে রাখা হয়েছে তারা জানেন না এবং প্রশাসনও নিশ্চিত না হওয়ায় নতুন করে দঃচিন্তায় পড়েছে কোম্পানীর শ্রমিক ও অপহ্নতের পরিবার-স্বজনরা । এখনো স্থানীয় প্রশাসন উদ্ধার অভিযান অব্যাহত রেখেছে এবং ৬ জনের ভাগ্যে কি জুটেছে তা নিশ্চিত নয় !

Facebooktwitterlinkedinyoutube
Facebooktwitterredditpinterestlinkedin


     More News Of This Category