,

আজ কোটালীপাড়া হানাদারমুক্ত দিবস

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি : আজ ৩ ডিসেম্বর, ১৯৭১ সালের এই দিনে পাক হানাদারমুক্ত হয় গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়া উপজেলা।

এদিন কোটালীপাড়ায় বয়ে গিয়েছিল আনন্দের বন্যা। অনেক দুঃখ বেদনার পরও সেদিন এলাকার মানুষের মধ্যে ছিল আনন্দের জোয়ার। সেদিন কোটালীপাড়ার মানুষ মুক্তির স্বাদ পেয়ে দলে দলে রাস্তায় নেমে পড়ে। প্রায় ৫০০ পাকহানাদারকে পরাজিত করে কোটালীপাড়াকে শত্রুমুক্ত করেছিল হেমায়েত বাহিনী।

এ অঞ্চলে পাকবাহিনী ছিল খুবই শক্ত অবস্থানে। আর পাকিস্তান সেনাবাহিনীর প্রশিক্ষক হেমায়েত উদ্দিন যুদ্ধ শুরু হলে দেশে পালিয়ে আসেন। ৮ হাজার মুক্তিযোদ্ধাকে নিয়ে তিনি গড়ে তোলেন হেমায়েত বাহিনী। কোটালীপড়ায় তিনি একটি ট্রেনিং ক্যাম্প গড়ে তোলেন। যেখানে পুরুষের পাশাপাশি নারীদেরও যুদ্ধের ট্রেনিং দেওয়া হতো। মুক্তিযুদ্ধ চলাকালীন বেশ কয়েকটি সম্মুখ যুদ্ধে অবতীর্ণ হয় হেমায়েত বাহিনী। এর মধ্যে হরিনাহাটি, মাটিভাঙ্গা, বাঁশবাড়িয়া, ঝনঝনিয়া, জহরেরকান্দি, কোটালীপাড়া সদরের যুদ্ধ অন্যতম। এ সব যুদ্ধের নেতৃত্ব দেন হেমায়েত বাহিনী প্রধান হেমায়েত উদ্দিন বীর বিক্রম।

দিবসটি পালন উপলক্ষে বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে। শনিবার সকাল ১০টায় শহীদদের স্মরণে আলোচনা সভা ও বিকাল ৩টায় শহীদ মুক্তিযোদ্ধাদের স্মরণে মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করা হয়েছে। এছাড়া কোটালীপাড়া উপজেলা সদরের পশ্চিমপাড়ে মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতিফলকে পুষ্পস্তবক অর্পণ ও আলোচনা সভার আয়োজন করা রয়েছে।

Facebooktwitterlinkedinyoutube
Facebooktwitterredditpinterestlinkedin


     More News Of This Category