,

মিরপুরে বিজয়া পূর্ণমিলনী ও দ্বি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত

আছাদুর রহমান বাবু: কুষ্টিয়ার মিরপুরে ব্যপক উৎসাহ উদ্দীপনা ও আনন্দঘন পরিবেশের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠিত হলো বিজয়া পূর্ণমিলনী ও দ্বি-বার্ষিক সম্মেলন-২০১৬।
শুক্রবার দিনব্যাপি উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের আয়োজনে মিরপুর মহিলা ডিগ্রি কলেজ অডিটোরিয়ামে এ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।
এতে মিরপুর পূজা উদযাপন পরিষদের সহ-সভাপতি শ্রী রাধারমন কর্মকারের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান কামারুল আরেফিন।
এসময় তিনি বলেন, ধর্ম নিয়ে কোন ভেদাভেদ করা যাবে না। যার যার ধর্ম সে সে পালন করবে। কেউ কারো ধর্মীয় কাজে বাধা দিতে পারবে না।

kushtia-pic

                                                                #সভাপতি বিশ্বজিৎ বিশ্বাস ও সম্পাদক সুকেশ#

তিনি আরো বলেন, ধর্মের নামে যারা নাশকতা সৃষ্টি করছে তারা কোন ধর্মেরই না। মিরপুর উপজেলাতে এ ধরনের কার্যকলাপ যাতে না হয় সেদিকে সকলকে খেয়াল রাখতে হবে।
এসময় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন মিরপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাহবুবুর রহমান, পৌর মেয়র হাজ্বী এনামূল হক, মিরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি তদন্ত) আক্তারুজ্জামান, কুষ্টিয়া জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারন সম্পাদক নরেন্দ্রনাথ সাহা, সাংগাঠনিক সম্পাদক নিলয় কুমার সরকার, আইন বিষয়ক সহ-সম্পাদক এ্যাডঃ শিলা বসু, প্রচার ও প্রকাশনা বিষয়ক সহ-সম্পাদক সুজন কর্মকার, মিরপুর উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সহ-সভাপতি শ্যামল কুমার চৌধুরী, বীর মুক্তিযোদ্ধা স্বপন কুমার চক্রবর্তী, সদস্য কার্তিক চন্দ্র মালাকার, কৃষ্ণ কমল বিশ্বাস, খন্দকবাড়ীয়া পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারন সম্পাদক শক্তি সঞ্চয় পাল, দৌলতপুর উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি বাবু দুলাল চন্দ্র দেবনাথ, ভেড়ামারা পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারন সম্পাদক কার্তিক চন্দ্র কুন্ডু, সদরপুর সার্বজনীন পুজা মন্দিরের সভাপতি কাঞ্চন কুমার প্রমুখ।
অনুষ্ঠানের শুরুতেই পূর্ণমিলনী ও দ্বি-বার্ষিক সম্মেলনের শুভ উদ্বোধন করেন কুষ্টিয়া জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি ও কুষ্টিয়া জজ কোর্টের পিপি এ্যাডঃ অনুপ কুমার নন্দী। অনুষ্ঠানটি সার্বিকভাবে পরিচালনা করে বাবু সুকেশ রঞ্জল পাল। পরে দ্বি-বার্ষিক সম্মেলনে বিশ্বজিৎ বিশ্বাসকে সভাপতি, বাবু সুকেশ রঞ্জন পালকে সাধারন সম্পাদক ও অন্নদা প্রসাদ মোহন্তকে সাংগাঠনিক সম্পাদক করে ৫১ সদস্য বিশিষ্ট নতুন কমিটি গঠন করা হয়। শেষে উপজেলার বিভিন্ন এলাকার সাংস্কৃতি কর্মীদের নিয়ে এক সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে।

Facebooktwitterlinkedinyoutube
Facebooktwitterredditpinterestlinkedin


     More News Of This Category