,

জঙ্গিবাদকে রুখতে লালনের মন্ত্রই প্রধান অস্ত্র : সংস্কৃতিমন্ত্রী

গোলাম কিবরিয়া মাসুম: ‘পারে লয়ে যাও আমায়’ এই স্লোগানে বাউল সম্রাট ফকির লালন শাহর ১২৬তম তিরোধান দিবস উপলক্ষে কুষ্টিয়ায় তিন দিনব্যাপী লালন স্মরণোৎসবের উদ্বোধন করা হয়েছে।

রোববার রাত ৯টায় কুষ্টিয়ার ছেঁউড়িয়ায় জেলা প্রশাসক জহির রায়হানের সভাপতিত্বে স্মরণোৎসবের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর।

তিনি আরো বলেন, জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে আমরা আজ সবাই ঐক্যবদ্ধ। এই জঙ্গিবাদকে যদি রুখতে হয় তাহলে লালনের মন্ত্রই হলো তার প্রধান অস্ত্র। যারা ধর্মের নামে মানুষ হত্যা করছে তারা কোন ধর্মের না। তাদের কোনো ধর্মই সমর্থন করে না। 

এ সময় মন্ত্রী বলেন, লালন শাহ সারাজীবন ধরে যে দর্শন প্রচার করেছেন সেটা হলো মানুষের প্রতি ভালবাসা। লালন শাহ সব ধর্মের মানুষকে সেবার করা কথা বলতেন।

তিনি বলেন, ধর্ম মানুষকে বিভক্ত করে না। পাশাপাশি একসঙ্গে মিলে মিশে বসবাস করতে শেখায়। ধর্মের সেই শিক্ষা আমাদের গ্রহণ করতে হবে।

তিনি আরো বলেন, মানুষের প্রতি মূল্যবোধ সৃষ্টির জন্য বাংলাদেশ সরকার ও সংস্কৃতি মন্ত্রণালয় কাজ করে যাচ্ছে।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন- বাংলাদেশে নিযুক্ত ইতালির রাষ্ট্রদূত মারিও পাল্মা, কুষ্টিয়ার পুলিশ সুপার প্রলয় চিসিম, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সদর উদ্দিন খান, সাধারণ সম্পাদক আজগর আলী, সিনিয়ির সহসভাপতি হাজি রবিউল ইসলাম, কুমারখালী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল মান্নান খান, পৌর মেয়র শামসুজ্জামান অরুন প্রমুখ।

মুখ্য আলোচক হিসেবে বক্তব্য রাখেন ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের প্রফেসর ড. আবুল আহসান চৌধুরী।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের পর গভীর রাত পর্যন্ত চলে লালন শাহ রচিত মরমী গান। পরিবেশন করেন লালন একাডেমির শিল্পীরা।

 

Facebooktwitterlinkedinyoutube
Facebooktwitterredditpinterestlinkedin


     More News Of This Category