,

অস্ট্রেলিয়ায় ১০ হাজার উট গুলি করে মারবে

অস্ট্রেলিয়ায় তীব্র খরায় পানির খরচ কমাতে ১০ হাজারেরও বেশি উট গুলি করে মারা হবে। অস্ট্রেলিয়ার দক্ষিণাঞ্চলে বুধবার (৮ জানুয়ারি) থেকে এ উটগুলোকে মারা হবে।

সেখানকার এক আদিবাসী নেতার নির্দেশ দেয়ার পর অস্ট্রেলিয়া সরকার এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য ডেইলি মেইল জানায়, বুধবার হেলিকপ্টার থেকে বন্য এ উটগুলোকে গুলি করে মারার প্রক্রিয়া শুরু হবে। প্রশিক্ষিত শুটার দিয়ে উটগুলোকে গুলি করা হবে। ১০ হাজারেরও বেশি উট মারতে কয়েকদিন সময় লেগে যেতে পারে বলে জানা গেছে।

বিপুলসংখ্যক উট একসঙ্গে মারার কারণ হিসবে অস্ট্রেলিয়া সরকার বলছে, অস্ট্রেলিয়ার দক্ষিণাঞ্চল খুবই খরাপ্রবণ এলাকা। আর এ কারণে দেশটির দক্ষিণাঞ্চলে পানির প্রচুর সংকট রয়েছে। উটগুলো অতিরিক্ত পানি পান করায় পানির সংকট তীব্র আকার ধারণ করছে। এছাড়া উটগুলো পানি খোঁজ করতে গিয়ে প্রচুর সম্পদহানি ঘটাচ্ছে। তাদের বর্জ্য থেকে প্রচুর মিথেন গ্যাস সৃষ্টি হচ্ছে বলেও দাবি করা হচ্ছে।

এওয়াইপির নির্বাহী বোর্ডের সদস্য মারিতা বেকার স্থানীয় সংবাদমাধ্যমকে বলেন, আমরা যে অঞ্চলে থাকি সেখানে খুব গরম পড়ে। খুবই অস্বস্তিকর পরিবেশের মধ্যে আছি। এর মধ্যে উটগুলোর উৎপাত আমাদের বিষিয়ে তুলেছে। তারা পানির জন্য ঘরবাড়িতে হানা দিচ্ছে, বেড়া ভেঙে দিচ্ছে। ক্ষেত মাড়িয়ে এসে ফসলের ক্ষতি করছে।

অস্ট্রেলিয়ার বন্য উট ব্যবস্থাপনা পরিকল্পনা বিভাগ দাবি করছে, বন্য এ উটগুলোর সংখ্যা যদি নিয়ন্ত্রণ করা না হয় তবে আগামী ৯ বছরে তা দ্বিগুণ হয়ে যাবে। তারা আরো দাবি করছে, এসব উটের মলমূত্র থেকে প্রতি বছর যে পরিমাণ মিথেন গ্যাস বের হয় তা এক টন কার্বনডাই অক্সাইডের সমপরিমাণ। ৪ লাখ গাড়ি থেকে এ পরিমাণ কার্বনডাই অক্সাইড নিঃসরণ হয় বলেও দাবি তাদের।

Facebooktwitterlinkedinyoutube
Facebooktwitterredditpinterestlinkedin


     More News Of This Category